সোলার প্যানেল কিভাবে কাজ করে

23 Jan, 2024
সোলার প্যানেল কিভাবে কাজ করে
Rate this post

দর্শকগন, আপনার কি চান আপনাদের বাসস্থানে ব্যবহৃত বিদ্যুৎ বিল এর পরিমাণ কম আসুক? অথবা প্রতিমাসে বিদ্যুৎ বিলের খরচ কমানো দরকার। যদি আপনি এ বিষয়ে জানতে চান তাহলে “সোলার প্যানেল কিভাবে কাজ করে”এই পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে স্বাগতম জানাচ্ছি।

সোলার প্যানেল কিভাবে কাজ করে এই বিষয়ে জানার পূর্বে চলুন সর্বপ্রথম জেনে নেওয়া যাক সোলার প্যানেল কি? আপনারা খেয়াল করলে দেখতে পারবেন, বাসার আশেপাশে খোলা মাঠে কিংবা বাড়ির ছাদ গুলোতে কালো বোর্ডের মত দেখতে কিছু বস্তু বা জিনিস দেখা যায় যেগুলোর উপর সূর্যের আলো পড়লে সেখান থেকে বিদ্যুৎ শক্তি উৎপন্ন হয় এগুলোই হচ্ছে সোলার প্যানেল। যার প্রধান কাজ হচ্ছে সূর্য থেকে প্রাপ্ত সৌরশক্তিকে শোষণ করে বিদ্যুৎ শক্তিকে রূপান্তরিত করা।

সোলার প্যানেল হচ্ছে এমন এক ধরনের ইন্টারকানেক্ট সিলিকন সোলার যা সার্কিট গঠন করতে সহায়তা করে।এটির বিভিন্ন ধরনের নাম রয়েছেন। যেমন- সোলার প্লেট, সোলার পিভি মডেল, সোলার মডেল, সোলার প্যানেল ইত্যাদি।

সোলার প্যানেল কিভাবে কাজ করে

সোলার প্যানেল সূর্যের আলোকে শোষণ করে বিদ্যুৎ প্রবাহ উৎপন্ন করে থাকে, ফলে ডিসি তারের মাধ্যমে আপনার বাড়ির ইলেকট্রিক জিনিসে বিদ্যুৎ সরবরাহ করে।

সোলার প্যানেলের সামনের দিকে গ্লাস লেয়ার, ইনসুলেট লেয়ার এবং প্রতিরক্ষামূলক ব্যাক শীট থাকে যার ফলে সোলার প্যানেলে নির্দিষ্ট পরিমাণে বিদ্যুৎ শক্তি উৎপাদন হয়।

যেহেতু সোলার প্যানেল সিলিকন সেন্স দিয়ে তৈরি করা হয় তাই যখন সোলার প্যানেলের উপর সূর্যের আলো প্রতিফলিত হয় তখন ইলেকট্রন গুলো তাদের গতি পরিবর্তন করতে শুরু করে যার ফলে বিদ্যুতের প্রবাহ সৃষ্টি হয় এটাকে এক ধরনের ডিরেক্ট কারেন্ট ও বলা চলে যা ডিসি বিদ্যুত নামেও বিবেচিত।

See also  কত বছর বয়স থেকে কৃমির ঔষধ খাওয়ানো যায়

সোলার প্যানেল সাধারনত তিন ধরনের হয়ে থাকে। যেমন-

  • অন গ্রীড সোলার প্যানেল
  • অফ গ্রীড সোলার প্যানেল, এবং
  • হাইব্রিড সোলার প্যানেল

তবে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক কোন সোলার প্যানেলটি কিভাবে কাজ করে।

অনগ্রিড সোলার প্যানেল: এটি এমন একটি সোলার প্যানেল যেখানে ব্যাটারি ব্যবহারের প্রয়োজন হয় না। এই সোলার প্যানেলটি বিদ্যুৎ বিল বাঁচাতে সহায়তা করে। যখন ইলেকট্রিসিটি থাকে তখন সোলার থেকে ইলেকট্রিক শক্তি আপনার বাসায় ব্যবহৃত ইলেকট্রিক যন্ত্র গুলিকে পরিচালনা করতে সহায়তা করে।

অফ গ্রীড সোলার প্যানেল: এই ধরনের সোলার সিস্টেমে ব্যাটারি ব্যবহারের প্রয়োজন হয়। অফ গ্রীড সোলার থেকে যে পরিমাণ ইলেকট্রিক শক্তি উৎপাদন হয় এর দ্বারা ব্যাটারি চার্জ করা সম্ভব। ফলে ব্যাটারিতে যে পরিমাণ ইলেকট্রিক শক্তি সঞ্চিত আছে সেটি নির্দিষ্ট ভোল্টেজকে নিয়ন্ত্রণ করে প্রয়োজন মোতাবেক বিদ্যুৎ শক্তিকে ইলেকট্রনিক্স জিনিসে প্রদান করে। এর মাধ্যমেই আমরা বাড়িতে পাখা, লাইট ব্যবহার করে থাকি

হাইব্রিড সোলার প্যানেল: এটি এমন এক ধরনের সোলার সিস্টেম যা অনগ্রিড এবং অফগ্রিড সোলার সিস্টেম উভয় হিসেবে কাজ করতে সক্ষমতা রাখে। হাইব্রিড সোলার প্যানেল বিদ্যুৎ বিল কমানোর কাজে এতটাই সহায়ক যে আপনার যদি বেশি বিদ্যুৎ আসে তাহলে তা ফেরত পাঠিয়ে দিতে পারবেন যার ফলে আপনার বিদ্যুৎ বিল কম আসবে।

পরিশেষে বলা যায় যে, সোলার প্যানেলযুক্ত বিভিন্ন ধরনের প্রোডাক্ট বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। যেমন- লুম সোলার প্যানেল, লিথিয়াম ব্যাটারি, সোলার ইনভার্টার ইত্যাদি।

See also  ২০ টি তরল পদার্থের নাম জেনে রাখুন

আপনি যদি আমাদের এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার বাড়িতে সোলার প্যানেল লাগানোর পরিকল্পনা করে থাকেন তাহলে আপনার জন্য বেশ উপকার হতে পারে বলে মনে করি। কারণ সোলার প্যানেল ইনস্টল করার ফলে আপনি প্রতি মাসে বিদ্যুৎ খরচ অনেকটা রোধ করতে পারবেন।

Rk Raihan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *